Blog

CAG Report: ক্যাগ রিপোর্টে কেন্দ্রের মিথ্যাচার! নবান্ন থেকে তোপ মুখ্য সচিবের


সুতপা সেন: ক্যাগ রিপর্ট তুলে রাজ্যকে আক্রমণ করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। ক্যাগে উল্লিখিত নানা অসঙ্গতির কারণ দেখিয়ে রাজ্যের প্রাপ্য বকেয়া না দেওয়ার যুক্তিও বোনা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। এই প্রেক্ষাপটেই শুক্রবার নবান্নে বসে কেন্দ্রের পেশ করা তথ্য ডাহা মিথ্যা বলে দাবি করলেন রাজ্যের মুখ্য সচিব বিপি গোপালিকা। নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি বলেন, ক্যাগে যা বলা হয়েছে তার সঙ্গে সত্যের কোনও যোগাযোগ নেই। প্রত্যেকটি দফতরের যথোপযুক্ত ইউটিলাইজেশন সার্টফিকেট বা ইউসি রয়েছে। দফতরগুলি ইউসি হাতে নিয়েই বসে আছে।   

আরও পড়ুন: Primary Teacher Recruitment: তৃণমূল ঘনিষ্ঠ হলে বাড়ির কাছে নিয়োগ! প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে কারচুপির অভিযোগ

সিএজি রিপোর্ট ২০২১-এ ২ লক্ষ ২৯ হাজার কোটি টাকার UC (Utilisation Certificate) দেওয়া হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে। মুখ্য সচিব জানিয়েছেন এটা ভুল রিপোর্ট। সরকার এটা মানছে না।

তিনি বলেন, ‘আটটি দফতর নিয়ে আলাদা করে বলা হয়েছে যে এদের ইউসি বাকি আছে। আমরা আটটা দফতরকেই বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলি’।

তিনি আরও জানিয়েছে, ‘শুধু ২০২২ নয়, ২০২১, ২০২২ পর্যন্ত সব ইউসি জমা দেওয়া হয়েছে। যখন‌ই কোনও দফতর কেন্দ্র থেকে টাকা পায় তখন সেই টাকা পাওয়ার আগে ইউসি জমা দিতে হয়। জমা না দিলে টাকা পাওয়া যায় না’।

আরও পড়ুন: Dev | Abhishek Banerjee: দেব-জল্পনায় এবার আসরে অভিষেক !

গোপালিকা জানিয়েছেন, ‘এই রিপোর্টে প্রায় ২০ বছরের একটা হিসাব দেওয়া হচ্ছে। এতগুলো বছর ধরে যদি ইউসি না দেওয়া হয়ে থাকে তাহলে এতদিন পরে কেন এটা বলা হলো? এটা ভ্রান্ত রিপোর্ট। আমাদের অ্যাকাউন্টেন্ট জেনারেলের কাছ থেকে এটা তো জেনে নেওয়া যেত’।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘কেন্দ্রীয় দল আসে। প্রায় ৩৩৪ টা দল এসেছে গত দুই বছরে।‌এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি এসেছে পঞ্চায়েত দফতরে। আমাদের কাছে এই দল এখনও পর্যন্ত যা জানতে চেয়েছে তার সব উত্তর আমরা দিয়ে দিয়েছি। আমাদের জমা দেওয়া সব ইউসি আমাদের কাছে আছে’।  

(দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির টাটকা খবর, আপডেট এবং ভিডিয়ো পেতে ডাউনলোড-লাইক-ফলো-সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের AppFacebookWhatsapp)

 





Source link

Hi, I’m invisioni.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *